1. abusayedatnkh@gmail.com : Abu Sayed : Abu Sayed
  2. admin@www.palashtv.com : Palash TV :
‘মহাভারত’ মঞ্চস্থ করলো জবির নাট্যকলা বিভাগ - SM PALASH
বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২, ০৫:৪৫ পূর্বাহ্ন

‘মহাভারত’ মঞ্চস্থ করলো জবির নাট্যকলা বিভাগ

প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত: শনিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩২ বার পড়া হয়েছে

 

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নাট্যকলা বিভাগে ‘মহাভারত’ এর প্রদর্শনী হয়েছে। নাটকের মঞ্চায়নে ছিলো বিভাগের ৭ম আবর্তনের শিক্ষার্থীরা। অভিনয় প্রস্তুতি পরীক্ষার অংশ হিসেবে বাচিক ও নৃত্য প্রয়োগের মাধ্যমে তারা এই নাটকের মঞ্চায়ন করেন। গত ৭ ও ৮ এপ্রিল নাট্যকলা বিভাগের প্রভাষক কৃপাকনা তালুকদার এর নির্দেশনায় নাটকটি মঞ্চস্থ হয়। নাটকটিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন বিভাগের ৭ম আবর্তনের শিক্ষার্থী- সাথী, মেশকাত, রাশেদ, সাব্বির, প্রিন্স, অনন্যা, নদী, বাবলু, নাঈম, সাম্য, মোমিত, মারুফ, রুদ্র, তাসিন, রোহান, সৌমিক, স্বপ্নীল, অর্থ, অৰ্ঘ্য, রঞ্জন, শান্ত, গৌর, বুশরা, নিশা, অনামিকা, কর্ণা, মীম, নিশা, সোমালী ও ঈশিতা। নাটকের কথক ঈশিতা ও সানজিদা, বর্ণনায় অরুন্ধতী, অনামিকা, বুশরা , আলম, সোমালী, বৃষ্টি, প্রিন্স, মেশকাত, রাসেল ও মাম্মী। নৃত্যে নিশা, কর্ণা, মাম্মী, সোমালী, বুশরা, অরুন্ধতী, অনামিকা, বাবলু, নদী, মীম, আলম, স্বপ্নীল, ঈশিতা, অনন্যা ও সানজিদা ও আলোক প্রক্ষেপণে ছিলেন কৃপাকনা তালুকদার, রঞ্জন, মীম ও সৌমিক। এবিষয়ে নাট্যকলা বিভাগের প্রভাষক কৃপাকনা তালুকদার বলেন, বিভাগের ৭ম আবর্তনের অভিনয় প্রস্তুতি পরীক্ষার অংশ হিসেবে বাচিক ও নৃত্য প্রয়োগের মাধ্যমে নির্মিত ‘মহাভারত’। যা ব্যাস রচিত মহাকাব্য মহাভারত এর কিছু উল্লেখযোগ্য আখ্যানকে তুলে এনেছে। পূর্ণাঙ্গ প্রযোজনা না হলেও এই কাজের মধ্যে দিয়ে আমরা আমাদের পঠিত বাচিক ও নৃত্যে অংশের গতানুগতিক প্রয়োগের বিপরীতে গিয়ে মহাভারতে বর্ণিত বিভিন্ন শ্লোক, মহাভারত আশ্রিত বিভিন্ন পদ্য, নাটকের সংলাপ এবং শাস্ত্রীয় নৃত্য প্রয়োগের মধ্যে দিয়ে ভিন্ন আঙ্গিকে উপস্থাপন করতে চেয়েছি এই মহাকাব্যকে। তিনি আরও বলেন, অভিনয় প্রস্তুতির এই পরীক্ষা প্রযোজনা শিক্ষার্থীদের আগামী জীবনের পূর্ণাঙ্গ প্রযোজনার সত্যিকার অর্থেই প্রস্তুতি মাত্র। একই সাথে বিগত বছর দুই একের বন্দিত্ব জীবন হতে নব উদ্যমে কাজে ফেরার এক প্রস্তুতিও বটে। তবুও এই যৎসামান্য কাজে এই আবর্তনের শিক্ষার্থীরা নিজেদের সর্বোচ্চ সৃজনশীলতা প্রকাশের চেষ্টা করেছে বলেই আমি বিশ্বাস করি । ফলে এই মহাকাব্যিক যাত্রায় শুধু কোর্স শিক্ষক হিসেবে নয় বরং শিষ্যের সারথী হিসেবে নিজেকে অধিষ্ঠিত করতে পেরে আমি আনন্দিত।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি